মাঠে মুখ থুবড়ে পড়ে গেলেন এরিকসেন, পরিত্যক্ত ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ড ম্যাচ

ইউরোর দ্বিতীয় দিনই দেখল হৃদয়ে শঙ্কার বান ডেকে যাওয়া এক ঘটনা। কোপেনহেগেনে ডেনমার্কের সঙ্গে ফিনল্যান্ডের ম্যাচের প্রথমার্ধের শেষদিকে হঠাৎ মাঠে পড়ে যান ডেনমার্কের ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন।

তাঁর শেষ অবস্থা এখনো জানা যায়নি। তবে কিছুক্ষণ আগে ইউরোপের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফা টুইট করে জানিয়েছে, ম্যাচ পরিত্যক্ত।

তবে গত কয়েক মিনিটে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে অসমর্থিত কিছু একাউন্টে একটি ছবি ছড়িয়ে পড়েছিল, যেখানে দেখা যায় এরিকসেনের হুঁশ ফিরেছে। পরে অবশ্য সংবাদ সংস্থা এএফপিও সেই ছবি ছাপিয়েছে। ছবিতে দেখা যায়, এরিকসেনের মুখে অক্সিজেনের মাস্ক লাগানো। তিনি মাথায় হাত দিয়ে তাকিয়ে আছেন।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে এরিকসেনের হুঁশ ফিরেছে।
ছবিতে দেখা যাচ্ছে এরিকসেনের হুঁশ ফিরেছে। 

সংবাদমাধ্যম বিইন স্পোর্টস জানাচ্ছে, এরিকসেনের অবস্থা এখন স্থিতিশীল। তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। হাসপাতালে নেওয়ার পথে এরিকসেনের সঙ্গে থাকা এক ডাক্তার ক্যামেরার দিকে ‘থাম্বস আপ’ দেখিয়েছেন বলেও জানাচ্ছে ইউরোপের কিছু সংবাদমাধ্যম।

পরিত্যক্ত হওয়ার আগে ম্যাচ গোলশূন্য সমতায় ছিল।

৪০ মিনিটে ফিনল্যান্ড বক্সের কাছাকাছি গিয়েছিলেন এরিকসেন, যাতে থ্রো-ইন থেকে বলটা পেতে পারেন। কিন্তু বল তাঁর কাছে আসার আগেই হঠাৎ মাঠে পড়ে যান এরিকসন। পড়ার সময় মুখ ছিল মাটির দিকে।

সঙ্গে সঙ্গেই সতীর্থ-ডাক্তাররা ছুটে আসেন তাঁর দিকে। তাঁদের উদ্বিগ্ন মুখই বলে দিচ্ছিল, অবস্থা ভীষণ গুরুতর। এক পর্যায়ে এরিকসেনের বুকে হাত দিয়ে চেপে (সিপিআর) তাঁর শ্বাস-প্রশ্বাস ফেরানোর চেষ্টা করা হচ্ছিল।

শেষ পর্যন্ত তাঁর কী অবস্থা তা এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে জানা যায়নি। চারিদিক ঘিরে রাখা হয়েছিল। প্রায় ১৩ মিনিট সেখানে চিকিৎসার পর ঘিরে রাখা অবস্থাতেই এরিকসেনকে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। দুই দলের খেলোয়াড়দের ড্রেসিংরুমে পাঠিয়ে দেন রেফারি।

এরিকসেন ও চিকিৎসক দলকে ঘিরে রাখা হয়েছে।
এরিকসেন ও চিকিৎসক দলকে ঘিরে রাখা হয়েছে। 

এরিকসেন মাঠে পড়ে যাওয়ার পরই ডেনমার্কের গোলকিপার ক্যাসপার স্মাইকেল নিজের গোলপোস্ট থেকে ছুটে আসেন সেখানে। ছুটে আসেন বাকিরাও। চিকিৎসকেরাও দ্রুত চলে আসেন।

খেলোয়াড়েরা এসেই এরিকসেনের চারদিকে ঘিরে দাঁড়ান দর্শকের দিকে মুখ করে। যাতে মানবদেয়ালের মধ্যে এরিকসেন ও চিকিৎসকদের কিছুটা গোপনীয়তা দেওয়া যায়। ফিনল্যান্ডের খেলোয়াড়েরা তখন অন্য পাশে গিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। সবার চোখেমুখেই ছিল উদ্বেগের ছাপ।

এক পর্যায়ে দেখা যায়, স্মাইকেল ও ডেনমার্ক অধিনায়ক মাঠের মধ্যে ‘এরিকসেন ১০’ জার্সি গায়ে চাপানো এক নারীকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি এরিকসেনের বান্ধবী সাবরিনা ইয়েনসেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *