বাজেটে থোক বরাদ্দের হিসাব প্রকাশিত না হলেও ডকুমেন্টেশন থাকতে হবে: অভিমত

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দীন আহমেদ বলেন, স্বাস্থ্য খাতে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হয়েছে, কিন্তু গতবছরের উন্নয়ন বাজেটের বরাদ্দই ব্যয় হয়নি, তাহলে বরাদ্দ বৃদ্ধির কী দরকার।

[৩] তিনি আরও বলেন, সরকারি বাজেট ও প্রাইভেট কোম্পানির বাজেট এক নয়, সরকারি বাজেট সকলকে প্রভাবিত করবে। অর্থাৎ বাজেটের বিবরণ বা অ্যাকশন যদি না থাকে তাহলে বাজেট তাৎপর্যহীন হবে।

[৪] বাজেটটি তাৎপযপূর্ণ করতে এখনো সময় আছে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী সংসদে বাজেটটি পূনরায় সংশোধন করে পরিপূরক করা এবং জনসমূক্ষে প্রকাশিত করা।

[৫] অর্থনীতিবিদ আনু মুহাম্মদ বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বাজেট বক্তব্যে থোক বরাদ্দের হিসেব না থাকলেও সরকারের কোনো না কোনো ডকুমেন্টে এই হিসেব থাকতে হবে।

[৬] স্বাস্থ্য খাতের মূল বরাদ্দ থেকে ৯ মাসে শতকরা ৩০ ভাগের কম খরচ হয়েছে এবং যে খরচ হয়েছে সেখানেও ইতোমধ্যে অনেক অনিয়ম দূর্নীতি হচ্ছে। এছাড়াও অনেক হাসপাতালে ডাক্তার, নার্স, মেডিকেল সরংঞ্জামসহ ইত্যাদি জিনিসের ঘাটতি দেখা যায়। সম্পাদনা: মেহেদী হাসান

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *